কুড়ি দিনের সিডনি দেখার অভিজ্ঞতায় মনে হয়েছে বাংলাদেশের মত এমন বসবাসযোগ্য দেশ পৃথিবীর আর কোথাও নেইঃ শাহিনা খাতুন।

বিডিনিউজ এক্সপ্রেসঃ ২০ (কুড়ি) দিন সিডনি থেকে গতরাতে ঢাকায় ফিরেছি। আমি এখনো ইউরোপ আমেরিকা যাইনি। এশিয়ার ২/৩ টি দেশ ছাড়া কোথাও যাইনি। তবে অনেকে যারা পৃথিবী ঘুরে বেড়াচ্ছেন, কেউ কেউ যারা স্থায়ীভাবে উন্নত দেশে বসবাস করেন তাদেরকে বলতে শুনেছি বাংলাদেশে কোন নিয়মকানুন নেই, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা নেই তাই এখানে এলে আর ভালো লাগেনা।তারা পুনরায় বিদেশে চলে যান। কিন্তু আমার এ কুড়ি দিনের অভিজ্ঞতায় মনে হয়েছে এমন বসবাসযোগ্য দেশ পৃথিবীর আর কোথাও নেই। যন্ত্র, নিয়মকানুন, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন, পরিপাটি সাজানো বাগান, ঘরবাড়ি রাস্তারাস্তাঘাট সব আছে। কিন্তু আমার দেশের মত ছড়িয়ে থাকা মায়া মমতা কোথাও নেই। একটা দুর্ঘটনা ঘটলে সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বা পুলিশ উপস্থিত হবে কিন্তু কোন অচেনা মানুষ জিজ্ঞেস করবেনা যে কী হয়েছে। আমার মনে আছে খুব দরিদ্র কোন বাড়িতে কোন ক্লান্ত পথিক গিয়ে এক গ্লাস পানি চাইলে সে বাড়ির মানুষ একটু গুড় বা একমুঠ মুড়ি আর কিছু ঘরে না থাকলেও একমুঠো চাল দিয়ে পানি খেতে দেয়। আর উন্নত দেশে ফ্রী বলতে কিছু নেই। সারাদিন কোন অফিসে থাকলেও তারা আপনাকে আতিথিয়েতা দেখাবেনা। দোকানে গিয়ে একটা জিনিস কিনলে দোকানদার আপনার কেনা জিনিসটা ব্যাগে ভরে দেবেনা। এমন হাজার ঘটনা আছে। কেউ উচ্চস্বরে কথা বলবেনা আবার রাস্তার পাশে কোন বাউল একতারা বা দোতারা নিয়ে গানও গাইবে না। আমাদের দেশের একটা সুর আছে একটা ছন্দ আছে। এ সুর আর কোথাও নেই। এখানে হাজারো মানুষ কবিতা ভালোবাসে, গান ভালবাসে। উন্নত দেশে নিস্তব্ধতা আছে, সুর নেই। তাই ভাবছি প্রাণপনে চেষ্টা করবো এ দেশটাকে উন্নত করার। আমার বিশ্বাস ২০৩০ সালের পর বাংলাদেশ হবে পৃথিবীর মধ্যে অন্যতম সুখী এবং বসবাসযোগ্য দেশ। তাই আবারও বলছি…
“এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবেনাকো তুমি
সকল দেশের রানী সে যে আমার জন্মভূমি।”

তারিখঃ ২৪/০৩/২০১৯