বোলারদের নৈপুন্যে টানা দ্বিতীয় জয় বাংলাদেশের

বোলারদের নৈপুন্যে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয়ের স্বাদ নিলো বাংলাদেশের যুবারা। ‘সি’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ বাংলাদেশ ৭ উইকেটে হারিয়েছে স্কটল্যান্ডকে। নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৯ উইকেটে হারিয়েছিলো আকবর আলীর দল। ২ খেলায় ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ। ১ খেলায় ১ জয়ে ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়স্থানে পাকিস্তান।
পচেফস্ট্রমে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে স্কটল্যান্ড। বল হাতে পেয়ে স্কটিশদের শুরুতেই চেপে ধরেন বাংলাদেশের দুই পেসার শরিফুল ইসলাম ও তানজীম হাসান সাকিব। ২১ রানের মধ্যে স্কটল্যান্ডের ৪ উইকেট তুলে নেন শরিফুল ও সাকিব।
এরপর স্কটল্যান্ডের মিডল, লোয়ার-অর্ডারে ধস নামান বাঁ-হাতি স্পিনার রাকিবুল হাসান। তার ৪ উইকেট শিকারে ৩০ দশমিক ৩ ওভারে ৮৯ রানেই অলআউট হয় স্কটল্যান্ড। দলের পক্ষে তিনজন ব্যাটসম্যান দু’অংকের কোটা পেরোতে পারেন। উজাইর শাহ ২৮, জেমি কেয়ার্নস ১৭ ও অধিনায়ক আঙ্গুস গায় ১১ রান করেন। বাংলাদেশের রাকিবুল ৫ দশমিক ৩ ওভারে ২০ রানে ৪ উইকেট নেন। এছাড়া শরিফুল ও সাকিব ২টি করে উইকেট নেন।
জয়ের জন্য ৯০ রানের লক্ষ্যে ইনিংসের প্রথম বলেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ওপেনার তানজিদ হাসান শুন্য রানে ফিরেন। এরপর উইকেটে গিয়ে বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন তিন নম্বরে নামা শামিম হাসান। ১০ রান করেন তিনি। ফলে ১৮ রানেই ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।
মারমুখী মেজাজে ইনিংস শুরু করে ২৫ রানে থামেন ওপেনার পারভেজ হোসেন ইমন। ১৫ বলে ২টি করে চার ও ছক্কায় নিজের ইনিংসটি সাজান তিনি। দলীয় ৩৫ রানে ইমনের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন তৌহিদ হৃদয় ও মাহমুদুল হাসান জয়। চতুর্থ উইকেটে ৫৬ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন হৃদয় ও জয়। হৃদয় ১৭ ও জয় ৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন।
আগামী ২৪ জানুয়ারি এই ভেন্যুতেই গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ পাকিস্তান।